Author Topic: After the promotion of dear friend...  (Read 903 times)

mim

  • Full Member
  • ***
  • Posts: 124
After the promotion of dear friend...
« on: May 11, 2019, 10:52:27 AM »
প্রিয় বন্ধুর পদোন্নতির পর...


দুই বন্ধু। স্কুল-কলেজ এমনকি বিশ্ববিদ্যালয়েও লেখাপড়া করেছেন একই সঙ্গে। লেখাপড়া শেষে পেশাজীবনে আসার পরও ঘটনাক্রমে একই অফিসে সহকর্মী হয়ে কাজ শুরু। একসঙ্গে জীবনের অনেকটা পথ পাড়ি দিতে পারায় অবশ্য দুই বন্ধুই দারুণ খুশি। কিন্তু কিছুদিন পর পদোন্নতি হলো কেবল একজনের। অপরজন বিষয়টি মেনে নেওয়ার চেষ্টা করলেও কিছুতেই সহজ হতে পারছেন না, আবার এ নিয়ে কাউকে কিছু বলতেও পারছেন না। অন্যদিকে পদোন্নতি পাওয়া বন্ধুর মনেও অনেক প্রশ্ন। এমন পরিস্থিতিতে পড়লে কী করবেন তা জানিয়ে পরামর্শ দিয়েছেন, মানবসম্পদ ও ব্যবস্থাপনাবিষয়ক পরামর্শক প্রতিষ্ঠান গ্রো এন এক্সেলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও মুখ্য পরামর্শক এম জুলফিকার হোসেন।

বাংলাদেশে এমন পরিস্থিতিতে অনেকেই আছেন বা অনেকেই পড়তে পারেন বলে মনে করেন এম জুলফিকার হোসেন। এ ক্ষেত্রে যে বন্ধুটি পদোন্নতি পেয়েছেন, তাঁর জন্যই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা বেশি চ্যালেঞ্জিং বলেও মনে করেন তিনি।

যে বন্ধুটি ‘বস’ হয়ে উঠলেন তাঁর প্রধান দায়িত্ব হলো প্রিয় বন্ধুর সঙ্গে কথা বলে তাঁকে সহজ ও স্বাভাবিক করে নেওয়া। অন্য সহকর্মীর সামনে তাঁকে যথাযথ সম্মান প্রদর্শন করা। তবে কোনো ধরনের পক্ষপাতিত্ব করা ঠিক নয়। আবার তাঁকে হেয় করা হয় এমন কোনো আচরণও ঠিক নয়। এই পরিস্থিতিতে হয়তো দীর্ঘদিনের বন্ধুর সঙ্গে আগের মতো ঘনিষ্ঠতা কমে যেতে পারে। তবে সেটা মেনে নিতে হবে। কর্মক্ষেত্রের বাইরে ব্যক্তিজীবনে সুসম্পর্ক বজায় রেখে সেটা অনেকটা স্বাভাবিক রাখা যেতে পারে। আর পেশগত ক্ষেত্রে কাজের বাইরে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য আলোচনা না করাই ভালো। কারণ ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের বা অফিসের লক্ষ্য ঠিক রেখেই উভয় বন্ধুর কাজ করা উচিত।

অন্যদিকে, প্রিয় বন্ধু বস হয়ে উঠলে অন্য বন্ধুকেও এই বাস্তবতা মেনে নিতে হবে এবং কিছু বিষয় মেনে চলতে হবে। বন্ধু এখন বস, তাই হয়তো অনেক কাজের খবর ও পরিকল্পনা তিনি আগেই জানতে পারবেন। কিন্তু তা অফিসে প্রচার করা ঠিক হবে না। আবার বন্ধু যে বড় দায়িত্ব পেয়েছেন, এতেও তাঁর খুশি থাকতে হবে এবং তাঁকে সহযোগিতা করতে হবে। কিন্তু তাঁকে চাপ প্রয়োগ করে কোনো কাজ করিয়ে নেওয়া ঠিক হবে না। প্রতিষ্ঠানের সফলতার জন্য দুই বন্ধুকেই গুরুত্বের সঙ্গে সমানতালে কাজ করে যেতে হবে। মনে রাখতে হবে বন্ধুত্ব ব্যক্তিগত বিষয় কিন্তু চাকরিতে দুজনকেই পেশাদার হতে হবে।

Source: The Daily Prothom Alo